হঠাৎ হুড়মুড করে ভেঙে পড়লো দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং!

63
bdtruenews24.com

অস্ট্রেলিয়ার বাইরে ডেভিড ওয়ার্নারের প্রথম ওয়ানডে সেঞ্চুরি গড়ে দিয়েছিল বড় সংগ্রহের ভিত। তাঁর ১০৯ রানের পাশাপাশি উসমান খাজার ৫৯ আর স্টিভেন স্মিথের ৫২ রানের দুটি ইনিংসের ওপর ভর করে অস্ট্রেলিয়া গড়েছিল ২৮৮ রানের সংগ্রহ। লক্ষ্য বড় হলেও জয়ের পথে দক্ষিণ আফ্রিকা এগিয়ে গিয়েছিল অনেকটাই। কিন্তু শেষ দিকে প্রোটিয়ারা আবার ভেঙে পড়ল চাপে। মাত্র ৪২ রানে শেষ ৭ উইকেট হারিয়ে ম্যাচটা তারা তুলে দিল অস্ট্রেলিয়ার হাতেই।

ক্যারিবীয় দ্বীপ সেন্ট কিটসের উইকেট যে গায়ানার মতো ছিল না, সেটা হয়তো বোঝা যাচ্ছে দুই দলের সংগ্রহ থেকেই। বোলারদের জন্য কিছুটা কঠিন এই উইকেটে প্রথম থেকেই ছড়ি ঘুরিয়েছেন ব্যাটসম্যানরা। তবে শেষ দিকে অস্ট্রেলীয় বোলাররা রীতিমতো জাদুই দেখিয়েছেন। মিচেল স্টার্ক, জশ হ্যাজেলউড কিংবা লেগ স্পিনার অ্যাডাম জামপা। এই ত্রয়ীর সম্মিলিত প্রয়াসেরই ৩ উইকেটে ২১০ থেকে ৪৭.৪ ওভারে ২৫২ রানেই শেষ প্রোটিয়ারা।

হাশিম আমলার ৬০, ফ্যাফ ডু প্লেসির ৬৩ রানের পাশাপাশি জেপি ডুমিনির ব্যাট থেকে এসেছে ৪১। তবে দক্ষিণ আফ্রিকার বিপর্যয়ের শুরুটা হয় এবি ডি ভিলিয়ার্স ৩৯ রানে ফেরার সঙ্গে সঙ্গেই। ২১০ রানের মাথায় ভিলিয়ার্স ফেরার সঙ্গে সঙ্গেই তাসের ঘরের মতোই ভেঙে পড়ে দক্ষিণ আফ্রিকার ব্যাটিং লাইনআপ।

স্টার্ক, হ্যাজেলউড, জামপা—প্রত্যেকেই নিয়েছেন ৩টি করে উইকেট। এর আগে অবশ্য অস্ট্রেলিয়ার ইনিংসে একটি করে উইকেট পেয়েছেন দক্ষিণ আফ্রিকার কাইল অ্যাবট, কাগিসো রাবাদা, ওয়েইন পার্নেল ও অ্যারন ফাঙ্গিসো। সেরা বোলার ছিলেন লেগ স্পিনার ইমরান তাহির। ৪৫ রানের বিনিময়ে তিনি পেয়েছেন ২ উইকেট। তথ্যসূত্র: রয়টার্স।

Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন: