স্বাগতিক ফ্রান্সের জয়ে শুরু ইউরো

88
bdtruenews24.com

সেন্ট ডেনিসের ৮০ হাজারেরও বেশি দর্শককে দারুণ উৎকণ্ঠায় রেখেছিল স্বাগতিক ফ্রান্স। অলিভিয়ের জিরুর গোলে এগিয়ে গিয়েও গ্রুপ ‘এ’র লড়াইয়ে রোমানিয়ার বিপক্ষে পয়েন্ট খোয়াতে বসেছিল তারা। কিন্তু ম্যাচের শেষ দিকে দিমিত্রি পায়েতের দারুণ এক গোলে পুরো ৩ পয়েন্ট নিয়েই মাঠ ছেড়েছে ফ্রান্স। স্বাগতিকদের দারুণ জয়ে ইউরো চ্যাম্পিয়নশিপের শুরুটাও হয়েছে দুর্দান্তই।

খেলার শুরুতেই সেন্ট ডেনিসে উপস্থিত দর্শকদের হৃৎকম্প প্রায় থামিয়েই দিয়েছিলেন রোমানিয়ার নিকোলাই স্টানসিউ। তবে এ ক্ষেত্রে ফ্রান্সের অধিনায়ক-গোলরক্ষক হুগো লরিস হয়ে উঠলেন ত্রাণকর্তা। খুব কাছ থেকে নেওয়া স্টানসিউর শটটি তিনি অসাধারণ রিফ্লেক্সে ফেরান গোললাইন থেকে।

এর কিছুক্ষণ পরে ফ্রান্সও কিন্তু এগিয়ে যেতে পারত। কিন্তু দুর্ভাগ্য তাদের। আতোয়াঁ গ্রিজমানের হেড রোমানিয়ার গোলপোস্টে লেগে ফিরে আসে। জিরুর একটি হেডও বিরতির আগে পোস্টের একটু বাইরে দিয়ে চলে যায়।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতেই আবারও সহজ সুযোগ নষ্ট করেন রোমানিয়ার স্টানসু। এবার ফ্রান্সের ডি-বক্সের মধ্যে একেবারে ফাঁকায় বল পেয়েও বাইরে মেরে দেন স্টানসু। ৫৬ মিনিটে পল পগবার দারুণ একটি শট রোমানিয়ান গোলরক্ষক কোনোমতে পা দিয়ে ঠেকালেও পরের মিনিটেই দলকে জিরুর গোলে এগিয়ে যায় ফ্রান্স। পায়েতের ক্রস থেকে দুর্দান্ত হেডে গোল করেন জিরু।

গোলে করে অবশ্য বেশিক্ষণ এগিয়ে থাকার সুবিধাটা নিতে পারেনি ফ্রান্স। ৬৪ মিনিটেই প্যাট্রিক এভরার ফাউল থেকে পেনাল্টি পেয়ে যায় রোমানিয়া। পেনাল্টিটি কাজে লাগান স্টানসু।

১-১ সমতায় জয়ের জন্য মরিয়া হয়েই খেলতে থাকে ফ্রান্স। একের পর এক আক্রমণে ব্যতিব্যস্ত রোমানিয়ার রক্ষণ কিন্তু ফ্রান্সের আক্রমণগুলো ঠেকিয়ে গেছে অসামান্য দৃঢ়তাতেই। তবে ৮৯ মিনিটে প্রায় ২০ গজ দূর থেকে পায়েতের নেওয়া দুর্দান্ত বাঁকানো শটটি ঠেকানো সম্ভব হয়নি তাদের। অসাধারণ এক গোলে ফ্রান্সকে ২-১ গোলে এগিয়ে দেন দিমিত্রি পায়েত। সেই সঙ্গে নিশ্চিত করেন ইউরো চ্যাম্পিয়নস শিপে দলের শুভ সূচনাও। সূত্র: রয়টার্স।

নিয়মিত খেলা উপভোগ করুন:

ইউরো-২০১৬ সূচি

Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন: