মিতু হত্যার ‘মূল হোতা’ আটক

682

এসপি বাবুল আক্তারের স্ত্রী মাহমদুা খানম মিতু আক্তার হত্যার ঘটনায় শাহ জামান ওরফে রবিন (২৮) নামের যুবককে আটক করা হয়েছে। পুলিশের দাবি, মিতু হত্যায় সরাসরি অংশ নেওয়া তিন যুবকের মধ্যে আটক রবিনও ছিল। তাকে ওই হত্যাকাণ্ডের ‘মূল হোতা’ হিসেবে দাবি করা হচ্ছে।

আজ শনিবার দুপুরে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশের (সিএমপি) কমিশনার ইকবাল বাহার তার কার্যালয়ের সভাকক্ষে আয়োজিত ব্রিফিংয়ে এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, গোপন সংবাদের ভিত্তিতে আজ সকালে নগরীর শীতল ঝরণা এলাকা থেকে মিতু হত্যায় জড়িত সন্দেহে রবিনকে আটক করা হয়েছে। কুমিল্লার লাকসামের মোহাম্মদ শাহজাহানের ছেলে সে।

সিএমপি কমিশনার বলেন, ক্লোজ সার্কিট ক্যামেরায় পাওয়া ফুটেজ মিলিয়ে অনেকটাই নিশ্চিত, আটক রবিন এসপির স্ত্রী মিতু হত্যায় সরাসরি অংশ নিয়েছিল। পুরোপুরি নিশ্চিত হতে আরও কিছু ফুটেজ মিলিয়ে যাচাই করা হচ্ছে। একইসঙ্গে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে পুলিশ।

এ ঘটনায় গত ৮ জুন চট্টগ্রামের হাটহাজারী থেকে আবু নাসের গুন্নু নামে শিবিরের সাবেক কর্মীকে আটক করেছে পুলিশ। এরপর গত ৯ জুন এক মাইক্রো চালককে জিজ্ঞাসাবাদের আটক করা হয়েছে। ঘটনার সময় ব্যবহৃত মোটরসাইকেলের পেছনে ছিল মাইক্রোবাসটি। ওই ঘটনায় ব্যবহৃত মোটসাইকেলটির ঘটনার দিন রাতেই জব্দ করেছিল পুলিশ। অন্যদিকে গতকাল চট্টগ্রাম প্রেসক্লাবের সামনে মিতু হত্যায় জড়িতদের বিচারের দাবিতে আয়োজিত মানববন্ধন চলাকালে ছুরিসহ এক যুবককে আটক করা হয়েছে।

এছাড়া হত্যাকাণ্ডে জড়িত অন্যদের ধরতে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে বলেও জানান সিএমপি কমিশনার।

প্রসঙ্গত, গত ৫ জুন সকাল ৭টায় ছেলেকে স্কুলবাসে তুলে দিতে যাওয়ার সময় চট্টগ্রামের জিইসি এলাকায় গুলি ও ছুরিকাঘাতে খুন হন মাহমুদা খানম। ঘটনার পর পুলিশ জানায়, জঙ্গি দমনে বাবুল আক্তারের সাহসী ভূমিকা ছিল। এ কারণে জঙ্গিরা তার স্ত্রীকে খুন করে থাকতে পারে। হত্যার পর ওই রাতেই পাঁচলাইশ থানায় মামলা করেন বাবুল আক্তার। ওই মামলায় অজ্ঞাতপরিচয় ৩ জনকে আসামি করা হয়েছে।

শেয়ার করুন :
Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন:

Loading Facebook Comments ...