ভ্যানিশ কালি হিসেবে ব্যবহার হত বীর্য!

101
bdtruenews24.com

এমন কিছু তথ্য আছে, খবর আছে, গোটা বিশ্বের কোথাও না কোথাও লুকিয়ে থাকলেও, পুরনো হলেও আকর্ষণের গুণে তাকে নিয়ে কৌতুহল পুরনো হয় না। তেমনই এক খবর এটি।

২০১০ সালে প্রথমে সামনে আসে এই অবাক করা খবরটি। জানা যায়, প্রথম বিশ্বযুদ্ধের সময় ব্রিটেনের গুপ্তচর সংস্থা MI6 চিঠি লেখার সময়, লিখে গোপন তথ্য আদানপ্রদানের সময় ভ্যানিশ কালি হিসেবে বীর্য ব্যবহার করত।

আজ থেকে ১০০ বছরেরও আগে ১৯১৫ সালে ওয়াল্টার কিরকে নামে এক গোয়েন্দা আধিকারিক এই বিষয়টি নিয়ে তাঁর পার্সোনাল ডায়েরিতে লেখেন। তিনি লেখেন, ম্যানসফিল্ড কামিং নামে জনৈক অফিসার তদন্ত করছেন একটি বিষয়ে। খতিয়ে দেখছেন ভ্যানিশ কালি হিসেবে বীর্যের ব্যবহার করা হচ্ছে কি না।

পরে একইবছরের অক্টোবরে ডায়েরিতে তিনি লেখেন, কামিংয়ের কাছে তিনি শুনেছেন যে ভ্যানিশ কালি হিসেবে সবথেকে কাজের বীর্য। যা চট করে বোঝা যায় না। এবং সহজে পাওয়ায় যায়।

ডায়েরিতে আরও উল্লেখ, অফিসাররা যারপরনাই খুশি হয়েছিলেন এটা জেনে যে আয়োডিন ভেপারের ব্যবহার হলেও বীর্য দিয়ে লেখা চিঠি পড়ে ফেলা মুশকিল।

ভ্যানিশ কালি হিসেবে ব্রিটিশ গোয়েন্দাদের এই অভিনব ব্যবহারের উল্লেখ সমেত আরও নানা তথ্য নিয়ে বই লেখেন প্রফেসর কেইথ জেফরি। নাম- MI6: The History of the Secret Intelligence Service 1909-1949।

বেলফাস্টের কুইনস ইউনিভার্সিটির ওই প্রফেসরকে একটা সময়ে MI6-র সমস্ত ফাইল পড়ার অনুমতি দেওয়া হয়। তা থেকেই বইটি লেখেন তিনি।

শেয়ার করুন :
Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন:

Loading Facebook Comments ...