প্রচ্ছদ অপরাধ

বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে গণধর্ষণের শিকার যুবতী

276

বান্ধবীর বাড়িতে বেড়াতে গিয়ে ধর্ষণের শিকার হয়েছে এক যুবতী (১৮)। এসময় তাঁর সাথে থাকা এক ছেলে বন্ধুকেও নির্যাতন করা হয়। এ ঘটনা ঘটে নারায়নগঞ্জের ফতুল্লায়। ওই যুবতী সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় একটি গার্মেন্টসে কর্মরত ছিলেন।

এ ঘটনার এরই মধ্যে ওই যুবতীর অভিযুক্ত বান্ধবী এবং দুই ধর্ষককে গ্রেফতার করেছে পুলিশ।

জানতে চাইলে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আসলাম হোসেন জানান, গত শুক্রবার এক গার্মেন্টস কর্মী তার ছেলে বন্ধুকে নিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় বেড়াতে যান। সেখানে মৌসুমী নামে ওই যুবতীর এক বান্ধবীর বাসায় যান তারা। কিন্তু সে সময় বান্ধবী মৌসুমী ও তাঁর লোকজন ওই গার্মেন্টস কর্মী ও তাঁর ছেলে বন্ধুকে আটক করে ৪০ হাজার টাকা দাবি করে। মৌসুমি ফোনে ওই যুবতীর মাকে জানায় তাঁর মেয়ে ছেলে বন্ধুকে নিয়ে ঘুরতে গেলে তাঁদের এলাকাবাসী আটক করেছে। এখন এলাকাবাসী টাকা দাবি করছে।

তিনি আরও জানান, খবর পেয়ে ওই যুবতীর মা থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করে এবং পরে পুলিশ প্রযুক্তি ব্যবহার করে ফতুল্লার আরাফাতনগর এলাকা থেকে ওই যুবতীকে উদ্ধার করে। উদ্ধারের পর ওই যুবতী গণধর্ষণ ও নির্যাতনের বিষয়টি জানায়।

এ বিষয়ে পুলিশ জানায়, শুক্রবার রাতেই মৌসুমী ওই যুবতীকে পাশের ধর্মগঞ্জ এলাকার সলিমুল্লাহর ইটভাটায় নিয়ে যায়। সেখানে থাকা ৮-৯ জনের হাতে যুবতীকে তুলে দেয় মৌসুমী। পরে তারা মিলে তাকে গণধর্ষণ করে। ওই সময় বাধা দেওয়ায় যুবতী ও তার ছেলে বন্ধুকে ব্যাপক মারধর করা হয়। এক পর্যায়ে অসুস্থ হয়ে পড়লে তাদের নিজের বাসায় এনে রাখে মৌসুমী। সেখান থেকেই তাকে উদ্ধার করে পুলিশ।

সর্বশেষ ডাক্তারি পরীক্ষার জন্য ভুক্তভোগী যুবতীকে নারায়ণগঞ্জ জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

Loading Facebook Comments ...