পাংশায় অদ্ভুত শিশুর জন্ম!

317
bdtruenews24.com

রাজবাড়ীর পাংশা উপজেলায় একটি প্রাইভেট ক্লিনিকে অদ্ভুত আকৃতির এক শিশুর জন্ম হয়েছে। এ সংবাদ এলাকায় ছড়িয়ে পড়লে ওই শিশুকে এক নজর দেখতে অনেকেই ভিড় করছেন ওই ক্লিনিকে।

জানা গেছে, গত বৃহস্পতিবার রাতে শহরের নিউরো ডায়াগনস্টিক সেন্টার অ্যান্ড হাসপাতালে সিজারিয়ান অপারেশনের মাধ্যমে ওই শিশুর জন্ম হয়। পাংশা পৌর এলাকার নারায়ণপুর গ্রামের শাহজাহান বিশ্বাসের স্ত্রী শাহিনুর বেগম শিশুটিকে জন্ম দেন।

সরেজমিনে গিয়ে দেখা যায়, শিশুটি তার দাদীর কোলে রয়েছে। শিশুটির অস্বাভাবিক বড় দুটি চোখ, মাথার মগজ বের হয়ে আছে। শিশুটির ওজন ৫ কেজি। তবে মাথা শরীরের আকারের তুলনায় ছোট।

শিশুটির দাদী রাবেয়া বেগম জানান, বৃহস্পতিবার তার পুত্রবধূ শিশুটি জন্ম দেয়। শিশুটির সারা শরীর ঠিক থাকলেও মস্তিস্ক, মাথার খুলি সমস্যা নিয়ে জন্ম নেয়।

তিনি আরো জানান, তার বোন এ ধরনের দুটি বাচ্চা জন্ম দিয়েছিলো। বাচ্চা দুটি জন্মের একদিন ও দুইদিন পরে মারা যায়।

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের (ইওসি) ডা. আঞ্জুয়ারা সুমি জানান, শিশুটি এনেনসিফ্যালি রোগে আক্রান্ত।

মাথার খুলি যে ভ্রূণ উন্নয়ন ঘটে, তার একটি বড় অংশের অনুপস্থিতির কারণে এটি দেখা দেয়। এটি একটি মস্তিস্ক সংক্রান্ত ব্যাধি। মাতৃগর্ভে একটি নিউরাল টিউবজনিত ত্রুটিতে এমন ঘটনা ঘটে। অনেক সময় বংশগত কারণেও এ ধরনের শিশু জন্ম নেয়। সাধারণত এ ধরনের জন্ম নেয়া শিশু একদিনের বেশি বাঁচে না।

শনিবার পর্যন্ত ওই শিশুটি বেঁচে আছে। কেউ কেউ এটিকে জিকা ভাইরাসের আক্রমণ হতে পারে বলে ধারণা করছেন। তবে চিকিৎসকরা এ ব্যাপারে নিশ্চিত হতে পারছেন না।

শেয়ার করুন :
Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন:

Loading Facebook Comments ...