নিত্যরঞ্জন হত্যার দায় স্বীকার আইএসের

65
bdtruenews24.com

জঙ্গি সংগঠন ইসলামিক স্টেট (আইএস) পাবনা সদর উপজেলার হেমায়েতপুরে শ্রীশ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র সৎসঙ্গ সেবাশ্রমের সেবায়েত নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে (৬২) হত্যার দায় স্বীকার করেছে ।

আইএসের সংবাদ সংস্থা ‘আমাক’ এ তথ্য জানিয়েছে বলে দাবি করেছে জঙ্গি কার্যক্রম পর্যবেক্ষণকারী ওয়েবসাইট ‘সাইট’।

আমাকের বরাত দিয়ে সাইট আরো জানায়, নিত্যরঞ্জনকে ধারালো অস্ত্র দিয়ে হত্যা করা হয়েছে বলে দাবি করেছে আইএস।

শুক্রবার ভোর ৫টার দিকে পাবনা সদর উপজেলার হেমায়েতপুরের মানসিক হাসপাতালের গেটের কাছে নিত্যরঞ্জন পাণ্ডেকে কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিত্যরঞ্জনের বাড়ি গোপালগঞ্জ সদরের আরুয়া কংশু এলাকায়। তিনি প্রায় ৪০ বছর ধরে হেমায়েতপুরের শ্রীশ্রী ঠাকুর অনুকূল চন্দ্র সৎসঙ্গ সেবাশ্রমে সেবক হিসেবে কর্মরত ছিলেন।

এ ঘটনায় তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়েছে জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ- খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদ এবং জেলা পূজা উদযাপন পরিষদ। জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ-খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সভাপতি চন্দন চক্রবর্তী ও সাধারণ সম্পাদক বিনয় জ্যোতি কুণ্ডু এবং জেলা পূজা উদযাপন পরিষদের সভাপতি গণেশ ঘোষ অবিলম্বে দোষীদের গ্রেফতার দাবি করেছেন।

পাবনা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবদুল্লাহ আল হাসান জানান, ডায়াবেটিসের রোগী নিত্যরঞ্জন প্রতিদিন ভোরে হাঁটতেন। শুক্রবার ভোরেও হাঁটছিলেন। পাবনা মানসিক হাসপাতালের উত্তরগেটে পৌঁছালে দুর্বৃত্তরা পেছন থেকে নিত্যরঞ্জন পাণ্ডেকে ঘাড়ে-মাথায় এলোপাতাড়ি কুপিয়ে পালিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই তার মৃত্যু হয়।

খবর পেয়ে পুলিশ গিয়ে ঘটনাস্থল থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে।

হত্যা মামলা দায়ের

পাবনায় ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের আশ্রমের সেবায়েত নিত্যরঞ্জন পাণ্ডে হত্যার ঘটনায় থানায় মামলা হয়েছে। শুক্রবার রাতে সদর থানায় আশ্রমের সাধারণ সম্পাদক যুগল কিশোর ঘোষ অজ্ঞাতদের আসামি করে একটি মামলা দায়ের করেন।

পাবনার পুলিশ সুপার আলমগীর কবির বলেন, এই হত্যার ঘটনায় এখনও কাউকে গ্রেপ্তার করা সম্ভব হয়নি। তবে পুলিশের অভিযান অব্যাহত রয়েছে।

সাধারণ মানুষ যেন হয়রানির শিকার না হয় সেই বিষয়টি মাথায় রেখেই অভিযান চলছে, বলেন তিনি।

শুক্রবার সকালে পাবনা মানসিক হাসপাতালের প্রধান ফটকে ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের আশ্রমের সেবক নিত্যরঞ্জন পাণ্ডেকে (৬০) কুপিয়ে হত্যা করা হয়।

নিত্যরঞ্জন গোপালগঞ্জ সদরের আরুয়া কংশু গ্রামের মৃত রসিক লাল পাণ্ডের ছেলে। তিনি প্রায় ৪০ বছর ধরে পাবনার ঠাকুর অনুকূল চন্দ্রের আশ্রমের সেবক ছিলেন।

Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন: