প্রচ্ছদ বিশ্ব সংবাদ

টয়লেট ভেবে ইমার্জেন্সি ডোর খুলে ফেললেন পাকিস্থানি যাত্রী

192

পাকিস্থান ইন্টারন্যাশনাল এয়ারলাইন্স (পিআইএ) এর একটি ফ্লাইটের একজন নারী যাত্রী কী ভয়টাই না ধরিয়ে দিয়েছিলেন পুরো বিমানজুড়ে! টয়লেটের দরজা ভেবে ভুল করে ইমার্জেন্সি এক্সিট (জরুরি বহির্গমন) এর দরজাটা খুলে ফেলেন ওই পাকিস্থানি যাত্রী! শনিবার (৮ জুন) এ ঘটনার কারণে ৭ ঘণ্টা বিলম্বে ছেড়েছে বিমানটি। পিকে-৭০২ ফ্লাইটটির ম্যানচেস্টার থেকে ইসলামাবাদের উদ্দেশে রওনা দেওয়ার কথা ছিল।

পাকিস্থানের রাষ্ট্রীয় পতাকাবাহী এই বিমান সংস্থার আকাশযান তখন ইংল্যান্ডের ম্যানচেস্টার বিমানবন্দরের রানওয়েতে ছিল। এমন সময় ইমার্জেন্সি এক্সিট (জরুরি বহির্গমন) ডোর খোলার বাটনে চাপ দেন ওই নারী যাত্রী। স্বাভাবিকভাবে উড়োজাহাজটির এয়ারব্যাগ স্যুট খুলে যায়। আর এর ফলে যাত্রীদের মাঝে সৃষ্টি হয় এক ভীতিকর পরিস্থিতি।

পরে জিজ্ঞাসাবাদে ইমার্জেন্সি এক্সিট দরজা কেন খুলেছেন জানতে চাইলে ওই নারী উল্লেখ করেন, তিনি ভেবেছিলেন এটি টয়লেট! এ ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে পিআইএ’র মুখপাত্র মাসুদ তাজওয়ার বলেন, ‘রানওয়েতে পার্ক থাকা অবস্থায় বিমানটির এয়ারব্যাগ স্যুট খুলে গিয়েছিল। তাই বড় ধরনের আতঙ্কের কিছু ছিল না।’

এদিকে গত ৭ জুন ইসলামাবাদ থেকে করাচি যাওয়া পিআইএ’র পিকে-৮৫৩ ফ্লাইটে সেহরির সময় পরিবেশন করা বাসি খাবার নিয়ে প্রতিবাদ জানান যাত্রীরা। কেবিন ক্রু সদস্যদের সঙ্গে তাদের বাকবিতণ্ডা হয়।

প্রসঙ্গত, একটি বিমান যখন আকাশে ওড়ে, তখন এর ভেতরের বায়ুর চাপ নিয়ন্ত্রণ করা হয় যাত্রীদের রক্তচাপ এবং শ্বাস প্রশ্বাসের উপযোগী করে। যার সাথে ওই উচ্চতায় বিমানের বাইরের বায়ুর চাপের বিস্তর পার্থক্য থাকে। এমন অবস্থায় যদি কোনো জানালা বা দরজা খোলা হয়, তখন বাইরের বায়ুর চাপ প্রচন্ড গতিতে বিমানের ভেতরের অংশ দখল করে নেয়ার চেষ্টা করে। সেই চাপ সহ্য করতে না পেরে বিমানের কাঠামো ভেঙে গিয়ে সেটি দুর্ঘটনায় পড়তে পারে। তাই উড়ন্ত অবস্থায় বিমানের জানালা বা দরজা খুব সতর্কতার সাথে বন্ধ করা হয়।

Loading Facebook Comments ...