আ.লীগ নেতা বাইশারী মংশৈলু মার্মার খুনী গ্রেফতার

91
bdtruenews24.com

সাইফুদ্দিন শিমুল, নাইক্ষংছড়ি, বান্দরবান: বান্দরবন জেলার নাইক্ষ্যংছড়ি উপজেলায় বাইশারী ইউনিয়নের মংশৈল হত্যা, ও গুলশান হামলার দায় স্বীকার করেছিল জঙ্গি গোষ্ঠী আইএস। গুলশান নিয়ে তোলপাড় চলাকালে অনেকটা ভাটা পড়ে গিয়েছিল আইএসের দায় নেওয়া এই হত্যাকাণ্ড।

কিভাবে দুর্গম পার্বত্য এলাকায় আইএস আসল! কে এই আইএস জঙ্গি! নাকি আইএসের নামে আতংক ছড়াতে চেয়েছে। এই নিয়ে প্রকৃত তথ্য উদঘাটন করার দাবীতে সরব ছিল এলাকাবাসী।

এরই মধ্যে এই মামলায় এক মিয়ানমারের নাগরিক ম্যাসলং এলাকার বাসিন্দা ক্যথোয়াই রাখাইনের পুত্র নেই নাইং রাখাইন (৪৫) কে আটক করে পুলিশ। দীর্ঘ সময় ধরে সে অত্র এলাকায় বসবাস করে আসছে।

মংশৈলু মার্মার বড় ভাই উথোয়াইলা মার্মা বলেন, আটক নেই নাইং রাখাইনের সাথে তার ছোট ভাইয়ের বিরোধ ছিল। ৩ বছর পূর্বে ইউনিয়নের গুইয়া পাড়া নামক স্থানে ধর্মীয় অনুষ্ঠান চলাচাকালীন দু’জনের মধ্যে কথা কাটাকাটির এক পর্যায়ে মংশৈলু মার্মাকে লাঠি দিয়ে মাথায় আঘাত করেছিল। উক্ত ঘটনায় আটক নেই নাইং রাখাইন ২ বছর জেল হাজতে থেকে পরে জামিনে মুক্তি পায়।

মুক্তি পাওয়ার পর থেকে তার ভাইকে প্রতিনিয়ত হত্যার হুমকি দিয়ে আসছিল বলে জানান। বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এস.আই আনিসুর রহমান আটকের ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, গত বৃহস্পতিবার গভীর রাতে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে সঙ্গীয় ফোর্স সহ অভিযান চালিয়ে রামু উপজেলার ঈদগড়ের বৈদ্যপাড়া এলাকার উপজাতীয় পল্লী থেকে তাকে আটক করা হয়। আটককৃত মিয়ানমার নাগরিক নেই নাইং রাখাইন বর্তমানে বাইশারী তদন্ত কেন্দ্রের হাজতখানায় রয়েছে। আটক হওয়া ব্যক্তি আইএস জঙ্গি গোষ্ঠীর সাথে জড়িত কিনা সে বিষয়ে বলতে নারাজ পুলিশ।

এদিকে আটক হওয়া ব্যক্তিকে হত্যাকারী দাবি করে তার ফাঁসি চেয়ে সমাবেশ করেছে স্থানীয় আওয়ামী লীগ ও মৃত মংশৈলু মার্মার পরিবারবর্গ।

শেয়ার করুন :
Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন:

Loading Facebook Comments ...