‘আমার সন্তান গেছে, আমি বুঝি বুক খালি হলে কেমন লাগে’

112
bdtruenews24.com

মন্জুরুল হক, গাজীপুর প্রতিনিধি: আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলার রায়ে অসন্তুষ্টি প্রকাশ করেছেন তার মা রুছমতুন্নেছা। তিনি বলেন, ১২ বছর আগে আমার ছেলেরে মারছে। আগের রায়ে ২২ জনের ফাঁসির রায় ছিল। এখন কেন ৬ জনে নামানো হল, আবার খালাস দেওয়া হল? আমি সকল আসামির ফাঁসি চাই। আমরা সকল আসামির ফাঁসির দাবীতে সর্বোচ্চ আদালতে যাবো। প্রয়োজনে শেখ হাসিনার কাছে যাব। আমার সন্তান গেছে, আমি বুঝি বুক খালি হলে কেমন লাগে। খালি বুক নিয়ে এখনও কষ্ট চাপা দিয়ে আছি।

আহসান উল্লাহ মাস্টারের গ্রাম হায়দারাবাদ এলাকার অলিউল্লাহর স্ত্রী জাহানারা বেগম ও জুলহাস উদ্দিনের ছেলে সেতারা বেগম বলেন, এই রায় মেনে নেওয়ার রায় নয়। হত্যাকারীদের যাবজ্জীবন হবে কেন? তাদের সকলের ফাঁসি চাই।

2016-06-15_181952আহসান উল্লাহ মাস্টারের খেলার সাথী ও চাচা আব্দুল করিম ভুঁইয়া (৭২), সাথী আলী আহমেদ (৭২) ও মহর আলী রায় ঘোষণার আগেই আহসান উল্লাহ মাস্টারের বাড়িতে রায়ের অপেক্ষা করছিলেন। তারা বলেন, সকল আসামীর ফাঁসির রায়ের অপেক্ষায় ছিলাম। আমরা প্রত্যাশা করেছিলাম ২২ জনের ফাঁসির রায় বহাল থাকবে। এখন সেখানে আবার ১৩ জনকে খালাস দেওয়া হয়েছে। এ রায়ে আমরা সন্তুষ্ট নই, মনে ব্যথা পেয়েছি। আমরা সকল আসামির ফাঁসি চাই।

এদিকে, রায় প্রচারের পর বিভিন্ন এলাকা থেকে নারী, পুরুষ, বৃদ্ধ, যুব, কিশোর শহীদ আহসান উল্লাহ মাস্টারের বাড়িতে ভীড় করছেন।

আহসান উল্লাহ মাস্টারের চাচাত ভাই সাংবাদিক নেতা আতাউর রহমান জানান, তাঁর ছেলে জাহিদ আহসান রাসেল এমপি রায়ের বিরুদ্ধে উচ্চ আদালতে আপিল করবেন।

বুধবার দুপুরে আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলায় প্রধান আসামী নূরুল ইসলামসহ ছয় জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল রেখেছেন হাইকোর্ট বেঞ্চ।

2016-06-15_182041

২০০৪ সালের ৭ মে বিএনপি-জামাত জোট সরকারের সময় গাজীপুর সদর উপজেলার নোয়াগাঁও এমএ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে সভা চলাকালীন প্রকাশ্যে গুলি করে হত্যা করা হয় জনপ্রিয় নেতা আহসান উল্লাহ মাস্টারকে।

এদিকে হাইকোর্টের রায়ের প্রতি সম্মান জানিয়ে বুধবার বিকালে প্রতিবাদ জানিয়েছেন গাজীপুর সাংবাদিক ইউনিয়ন কাপাসিয়া ইউনিটের আহবায়ক নূরুল আমীন সিকদার, সাংবাদিক মন্জুরুল হক, আসাদুল্লাহ মাসুম, এড. সারওয়ার ই কায়নাত প্রমুখ।

সংশ্লিষ্ট সংবাদ:

আহসান উল্লাহ মাস্টার হত্যা মামলায় ৬ জনের মৃত্যুদণ্ড বহাল

Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন: