আওয়ামী লীগ প্রার্থীদের জয়জয়কার

কক্সবাজার জেলায় ৬ষ্ঠ ধাপের ইউপি নির্বাচন

124
bdtruenews24.com

অজিত কুমার দাশ হিমু, কক্সবাজার: নির্বাচন কমিশন ঘোষিত ৬ষ্ঠ ধাপের ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে কক্সবাজার জেলার ৩টি উপজেলায় ১৭টি ইউনিয়নে আওয়ামী লীগ মনোনীত প্রার্থীদের জয় জয়কার। এ ৩ উপজেলায় সর্বশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতিকের ৮জন, আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী ৪জন, স্বতন্ত্র ৩জন ও বিএনপি দলীয় ধানের শীষ প্রতীকে ২ জন চেয়ারম্যান প্রার্থী বেসরকারীভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তারা হলেন—

কক্সবাজার সদর উপজেলা:
ঈদগাঁও ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী প্রার্থী মটর সাইকেল প্রতীকের সৈয়দ আলম বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী প্রার্থী চশমা প্রতিকের প্রার্থী হুমায়ন তাহের চৌধুরী হিমু।

চৌফলদন্ডী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ওয়াজ করিম বাবুল বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

ইসলামাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র প্রার্থী নুর ছিদ্দিক বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দি আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুরুল হক সওদাগর।

পোকখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ বিদ্রোহী ঢোল প্রতীকের রফিকুল ইসলাম বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী মো. মহিদুল ইসলাম।

জালালাবাদ ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ইমরুল হাসান রাশেদ বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির আলমগীর তাজ জনি।

ইসলামপুর ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী আবুল কালাম বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামীলীগ দলীয় প্রাথী মনজুর আলম।

রামু উপজেলা:
সদর ইউনিয়ন ফতেখারকুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী ফরিদুল আলম বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপি দলীয় প্রাথী আবুল বশর বাবু।

জোয়ারিয়ানালা ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী কামাল শামসুদ্দিন প্রিন্স বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

দক্ষিণ মিঠাছড়ি ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আনারস প্রতীকের ইউনুচ ভূট্টো বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির ধানের শীষের সাইফুল আলম।

রাজারকুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ বিদ্রোহী আনারস প্রতীকের মফিজুর রহমান বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির ধানের শীষের আবদুর রহিম।

চাকমারকুল ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী নুরুল ইসলাম সিকদার বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি স্বতন্ত্র মফিদুল আলম।

খুনিয়া পালং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী আবদুল মাবুদ বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন।

উখিয়া উপজেলা:
রাজাপালং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামীলীগ দলীয় নৌকা প্রতীকের প্রার্থী জাহাঙ্গীর কবির চৌধুরী বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির তারেক রাজীব।

রত্নাপালং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে স্বতন্ত্র ঘোড়া প্রতীকের প্রার্থী খাইরুল আলম চৌধুরী বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপির নুরুল কবির চৌধুরী।

জালিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে বিএনপি দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী নুরুল আমিন চৌধুরী বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি আওয়ামী লীগ দলীয় প্রাথী এসএম ছৈয়দ আলম।

হলদিয়াপালং ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে আওয়ামী লীগ দলীয় নৌকা প্রতিকের প্রার্থী শাহ আলম চৌধুরী বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপি দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী বাবুল আহমদ।

পালংখালী ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ঘোড়া প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আবদুল গফুর বেসরকারীভাবে চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বি বিএনপি দলীয় ধানের শীষ প্রতীকের প্রার্থী মোক্তার আহমদ।

Follow Facebook

আপনার মন্তব্য প্রকাশ করুন: